ফাইভার নিয়ে কিছু প্রশ্নের উত্তর।

ফাইবার রেভিনিউ কার্ড আর পাওনীয়ার কার্ড এর মধ্যে পার্থক্য কি?
ফাইবার রেভিনিউ কার্ড আর পাওনীয়ার কার্ড একি জিনিষ। আপনার যদি আগে পাওনীয়ার কার্ড এ একাউন্ট থাকে তাহলে নতুন করে ফাইবার রেভিনিউ কার্ড এ অ্যাপ্লাই করার প্রয়োজন নাই। আপনি ফাইবার এ গিয়ে আপনার পাওনীয়ার কার্ড অ্যাড করে নিতে পারবেন। যাদের কার্ড করা নেই তারা অনেকেই জানতে চান কিভাবে করলে ভাল হয়। আমার মনে হয় পাওনীয়ার থেকে সরাসরি করে তারপর ফাইবার এ অ্যাড করলে ভাল হয়। তার মানে এটা না যে ফাইবার রেভিনিউ কার্ড থেকে একাউন্ট করা যাবে না।
ফাইভার নিয়ে কিছু প্রশ্নের উত্তর।

“Waiting for card issuer approval” লেখা কখন আসে?

আপনি ফাইবার এ আপনার পাওনীয়ার কার্ড অ্যাড করার পর যদি “Waiting for card issuer approval” এরকম লেখা আসে তাহলে আপনাকে ফাইবার এ আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র এর কপি সাবমিট করতে হবে। আপনার পাওনীয়ার কার্ড তাহলে আপ্রুভ হবে আর ফাইবার থেকেও ওই লিখাটা চলে গিয়ে নেক্সট এ আপনাকে কি করতে হবে সেটা বলবে। আপনার যদি কার্ড অ্যাক্টিভ করার ব্যাপার থাকে তাহলে সেটাই দেখাবে আর আপনার কার্ড অ্যাক্টিভ করার পর আপনার ফাইবার একাউন্ট এ যদি $20 এর কম থাকে তাহলে ও ফাইবার রেভিনিউ কার্ড এর বাটনটি অফ দেখাবে। আপনার একাউন্ট এ $20 এর বেশি চলে আসলে আপনার কার্ড টাকা তুলার জন্য রেডি। আর একবার আমি ফাইবার রেভিনিউ কার্ড নিয়ে একটা প্রবলেম এর জন্য ফাইবার এ যোগাযোগ করেছিলাম তারা আমাকে বলেছিল পাওনীয়ার এ যোগাযোগ করার জন্য কারন ফাইবার রেভিনিউ কার্ড এর ব্যাপার শুধু মাত্র পাওনীয়ার দেখে থাকে। তাই ফাইবার রেভিনিউ কার্ড নিয়ে কোন প্রবলেম হলে পাওনীয়ার এ যোগাযোগ করুন। এদের সাথে আপনি লাইভ কথা বলতে পারবেন, চ্যাট করতে পারবেন অথবা মেসেজ পাঠাতে পারবেন। আমি তাদের সাথে চ্যাট করেছি আমার অভিজ্ঞতা অনেক ভাল। আপনারা ও চেষ্টা করে দেখতে পারেন।

একাউন্ট ব্যান করে দিলে টাকা তুলা যাবে কিনা?

আর একটা ব্যাপার হল একাউন্ট ব্যান করে দিলে টাকা তুলা যাবে কিনা। অবশ্যই টাকা তুলা যাবে, আমার জানা মতে আপনি টাকা না তুলে ওই একাউন্ট ক্লোজ করতে পারবেন না আর একাউন্ট ক্লোজ না করে নতুন একাউন্ট ওপেন করলে আবার ব্যান হউয়ার সম্ভবনা থাকে।

একটা পাওনীয়ার একাউন্ট এ কতগুলি ফাইবার একাউন্ট অ্যাড করা যাবে?

ওদিন দেখলাম একজন জানতে চাইছে একটা পাওনীয়ার একাউন্ট এ কতগুলি ফাইবার একাউন্ট অ্যাড করা যাবে, আমার মনে হয় আনলিমিটেড। কিন্তু সেটা আগের একাউন্ট ক্লোজ করে তারপর। আমি ফাইবার এর কাছে জানতে চেয়াছিলাম ব্যাপারটা তারা বলল আগেরগুলি ক্লোজ করে দিয়ে নতুন একাউন্ট অ্যাড করলে কোন সমস্যা নাই, একটা পোস্ট এ দেখেছিলাম একজন লিখছে অন্য একাউন্ট অ্যাড করতে গেলে মেইল আইডি পরিবর্তন করা লাগবে, এইটা সেইটা তাই ফাইবার এর কাছেই জেনে সিউর হতে হয়েছে।

ব্যাংক এর মাধ্যমে কিভাবে টাকা তুলা যাবে?

মনে রাখবেন ফাইবার এ ব্যাংক এর মাধ্যমে যে টাকা তুলার পদ্ধতি আছে সেটা পেওনিয়ার এর সার্ভিস। আপনাকে অবশ্যই পেওনিয়ার এ একাউন্ট করতে হবে এর পর সেখানে “Withdraw” নামের একটা মেনু আছে ওখানে “To bank account” এর একটা সাবমেনু আছে, সেখান থেকে আপনি আপনার ব্যাংক একাউন্ট সেটিংস করবেন। সেখানে আপনাকে আপনার ব্যাংক একাউন্ট এর উপর বিভিন্ন তথ্য দিতে হবে, তারপর আপনার ব্যাংক একাউন্ট রেভিউ এর জন্য যাবে। খুব তাড়াতাড়ি আপনার ইমেইল অ্যাড্রেস এ কনফারমেশন মেইল চলে আসবে। এরপর টাকা তুলেতে গেলে আপনি লিস্ট থেকে আপনার ব্যাংক একাউন্ট নিরবাছন করবেন, কত টাকা তুলতে চান সেটা লিখবেন তারপর “Continue” এ ক্লিক করবেন। আপনার টাকা খুব তাড়াতাড়ি আপনার ব্যাংক এ চলে যাবে

ফাইবার এ কোন কাজগুলি বেশি থাকে?

একজন জানতে চাইল ফাইবার এ কোন কাজগুলি বেশি থাকে। ফাইবার এ গ্রাফিক ডিজাইন এর মধ্যে লোগো ডিজাইন এর কাজ সব থেকে বেশি থাকে বলে আমার ধারনা, যত ছোট কোম্পানি ই হোক লোগো তো সবাই ই বানাতে চায়। কোম্পানি না শুধু ওয়েব সাইট ওপেন করা হয়েছে তার জন্য ও লোগো বানাতে চায় তাই লোগো ডিজাইন এর ডিমান্ড সব থেকে বেশি। এরপর টি শার্ট ডিজাইন এর কাজ ও অনেক পাওয়া যায়। যারা ওয়েব এর কাজ করেন সেখানে ওয়ার্ডপ্রেস এর কাজ আছে অনেক, এসইও এর কাজ ও অনেক আছে। কাজ পাওয়ার যাবে, আপনি একটা বিষয়ে দক্ষ হন, কাজের অভাব এ পরবেন না বলেই মনে হয়। একটা গিগ দেখেছিলাম সে লিফটলেট বিলি করবে অনেক নাম করা জায়গায় এবং সেই গিগ এর সেল ও হয়েছে বেশ কিছু। আমি কাজটিকে ছোট করে দেখে কথাটা লিখি নাই এখানে। অবশ্যই সব কাজ ই বড় আমি বুঝাতে চাইলাম আপনি যদি কোন কিছুতে দক্ষ হন আর মনে করেন যে এই কাজটা অন্যকারো লাগতে পারে তাহলে আপনি শুরু করে দেন।

মার্কেটিং করে ইম্প্রেশন, ভিউ সব ভাল কিন্তু কাজ পাওয়া যায় না কেন?

অনেকে জানতে চায় মার্কেটিং করে, ইম্প্রেশন, ভিউ সব ভাল তারপর ও কাজ পায় না। প্রথম অবস্থায় সরাসরি বায়ার এর কাছ থেকে কাজ পাওয়া খুব সহজ না। অনেক ভাল করে মার্কেটিং করলে ও সহজ না, তাই এখানে আপনাকে বায়ার রিকুয়েস্ট পাঠাতে হবে, বায়ার রিকুয়েস্ট এ আপনার গিগ রিলেটেড রিকুয়েস্ট থাকবে সেখান থেকে আপনি রিকুয়েস্ট পাঠাতে পারেন এবং এর মাধ্যমে কাজ ও পেতে পারেন। আপনি যদি ভাল করে কাজ বুঝে রিকুয়েস্ট পাঠান তাহলে আপনি কাজ পেতে পারেন।

বায়ার রিভিউ দেয় না কেন?

অনেকে আছে কাজ করেন,কিন্তু বায়ার রিভিউ দেয় না। এই ক্ষেত্রে আপনি কাজ ডেলিভার করার সময় বায়ারকে অনুরোধ করতে পারেন। কিন্তু জোর করবেন না। এই ভাবে বলতে পারেন আপনার কাজ যদি তার ভাল লেগে থাকে তাহলে সে যেন আপনাকে একটা ভাল রিভিউ দেয় যেটা আপনার ফাইবার এর ক্যারিয়ার এর জন্য উপকারি, তাহলে দেখবেন অনেকই রিভিউ দিবে।

Rules: Make sure your comment add content to the page. Then add your links thereafter. Irrelevant comments will be deleted.

Post a Comment

Add Comment (0)

Previous Post Next Post