হোয়াটসঅ্যাপের তথ্য ফেসবুকে ঠেকানোর উপায় জেনে নিন

নিজেদের ‘প্রাইভেসি পলিসি’তে বড়সড় রদবদল এনে ফেসবুককে তথ্য পাঠানোর কথা জানিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ। অর্থাৎ আপনার হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর থেকে ‘চ্যাট হিস্ট্রি’র সব তথ্য থাকবে ফেসবুকের কাছেও। এ ব্যাপারে ফেসবুকের ভাষ্য, ব্যক্তিগত তথ্য বিশ্লেষণ করে ইউজারদের আগ্রহ অনুযায়ী বিজ্ঞাপন দেখাবে তারা। এর পেছনে অন্য কোনো উদ্দেশ্য নেই। ২০১৪ সালে হোয়াটসঅ্যাপ অধিগ্রহণের সময় ফেসবুক যদিও জানিয়েছিল, হোয়াটসঅ্যাপের সঙ্গে তাদের কোনো সম্পর্ক থাকবে না। দু’টি আলাদা সংস্থা হিসেবে কাজ করবে ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ। তার পর মাস কয়েক আগেই এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন প্রযুক্তি চালু করে হোয়াটসঅ্যাপ। যার ফলে আপনি কোনো মেসেজ পাঠালে মাঝ রাস্তায় হ্যাক করে পড়ে ফেলতে পারবে না কেউ-ই। যার উদ্দেশ্যে মেসেজ পাঠাচ্ছেন পড়তে পারবেন শুধু সেই ব্যক্তি। কিন্তু এবার হোয়াটসঅ্যাপ ফেসবুকের সঙ্গে তথ্য শেয়ার করবে এই খবরে আতঙ্কিত অনেকেই। অনেকেরই ধারণা, হোয়াটসঅ্যাপের চ্যাট বুঝি এবার দেখা যাবে ফেসবুক মেসেনজারেও। না, তেমন কিছু হচ্ছে না। তবে আপনি যদি ফেসবুককে আপনার হোয়াটসঅ্যাপের তথ্য জানাতে না চান তার ব্যবস্থাও রয়েছে। নিচে সেই নির্দেশনাই রইল-

অ্যান্ডরয়েড ফোনের জন্য:
১. হোয়াটসঅ্যাপের একেবারে ডান দিকে ওপরে ‘থ্রিড ডট মেনু’তে ট্যাপ করুন।
২. একটা ড্রপডাউন মেনু খুলবে, এবার সেটিংসে ট্যাপ করুন।
৩. ‘শেয়ার মাই অ্যাকাউন্ট ইনফো’ লেখার পাশে যে চেকবক্সটি রয়েছে সেটি আনচেক করে দিন।

আইফোনের জন্য:
১. সেটিংসে ট্যাপ করুন।
২. ‘শেয়ার মাই অ্যাকাউন্ট ইনফো’ অনচেক করুন।

মনে রাখবেন, একবার শেয়ারিং বন্ধ করলে কিন্তু আর চালু করা যাবে না।

Rules: Make sure your comment add content to the page. Then add your links thereafter. Irrelevant comments will be deleted.

Post a Comment

Add Comment (0)

Previous Post Next Post